home ১৬:৯ * ইলিয়াস কমলের সিনেব্লগ ইলিয়াস কমলের সিনেব্লগ ১৬ঃ৯ ।। প্যাটারসন : একজন বাস ড্রাইভার ও কবি’র গল্প

ইলিয়াস কমলের সিনেব্লগ ১৬ঃ৯ ।। প্যাটারসন : একজন বাস ড্রাইভার ও কবি’র গল্প

আন্দ্রেই তারকোভস্কির নস্টালজিয়া ছবি যারা দেখছেন তারা হয়ত আমার সাথে একবাক্যে স্বীকার করবেন, ছবি শুরুর সময়কার দৃশ্য দেখলে কবিতাই মনে হয়। তারকোভস্কি সেই সকালকে কবিতার মতো দেখিয়েছিলেন। বিশ্বজোরা এমন নির্মাতা কমই আছে। যারা বাস্তবের গল্প, ঘটনা বা দৃশ্যপট কবিতার মতো করে পর্দায় উপস্থাপন করতে পারেন। তবে সরাসরি কবিতার দৃশ্যায়ন করেছেন খুব কম নির্মাতাই। পৃথিবীব্যাপী এমন নির্মাতা হাতে গোনা। তার মাঝে জেমস রবার্ট জিম জারমুস, সংক্ষেপে জিম জারমুস নামেই পরিচিত। তাকে অনায়াসে এই তালিকায় রেখে দেয়া যায়। ছবি দেখার আগে এমন ভাবনা কিন্তু মাথায় ছিলো না। একদম অন্য ভাবনা নিয়ে বসেছিলাম জারমুস পরিচালিত ‘প্যাটারসন’।
ছবিতে কেন্দ্রীয় নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইরানী অভিনেত্রী গোল্ডস্ফিথ ফারহানী। এই পার্সিয়ান সুন্দরীকে দেখার লোভ সামলাতে না পেরে কারো কাছ থেকে ছবি সম্পর্কে কোনও কিছুই (এমনকি পরিচালকের নাম পর্যন্ত না) না জেনে ছবি দেখতে বসে গেলাম। মন মেজাজ অস্থির ছিলো, আর তার জন্য টনিক হিসেবে কাজ করলো একটু ধীর লয়ের ছবি। গল্প ভালো লেগে যেতে শুরু করলো। দেখতে শুরু করলাম, এক বসায় দেখলাম ১ ঘন্টা ৪০ মিনিটের ছবি। 

ec687951727e5740f46b87d9b46b122b
ছবি সম্পর্কে সম্পুরক তথ্যগুলো জানিয়ে দেয়া যায় এ ফাঁকে, যতক্ষণ আপনি-আপনারা ছবি নিয়ে ভাবতে থাকবেন। ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রের নামও কিন্তু পেটারসন। পেশায় বাস ড্রাইভারের এই চরিত্রে যিনি অভিনয় করেছেন কাকতালীয় হলেও সত্য তার নামও ড্রাইভার। এডাম ড্রাইভার। ২০০১ সালে ৯/১১ হামলার পর এডাম মার্কিন সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন। ৩ বছর সেনাবাহিনীতে কাজ করার পর ফিরে নাম লেখায় অভিনয়ের খাতায়। এই ছবিতে অভিনয় করে তিনি লস অ্যাঞ্জেলস ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যাল থেকে সেরা অভিনেতা ও টরেন্টো ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যাল থেকেও সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন। এইগুলো এডাম ড্রাইভারের ব্যক্তিগত অর্জন। সামগ্রিক ছবি হিসেবে ‘প্যাটারসন’ পেয়েছেন কান ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যালে পাম ডগ অ্যাওয়ার্ড। এইগুলো সিনেমা নিয়া সারফেস তথ্য। মূল বিষয় ছবির গল্প বলার ধরণ, চিত্রনাট্য ও এডাম ড্রাইভার এর অভিনয়।
তুলনামূলক বেশী মনযোগ ধরে রাখার সুযোগ ছিলো প্যাটারসনের স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করা ফারহানীর। নানা ধরনের চমকও দেখাতে চেয়েছে ফারহানী। কিন্তু ছবির মূল চমক আসলে এর দর্শনে, এর অন্তর্গত সৌন্দর্যে। এই সৌন্দর্য্য কামিল করতে হলে সময় করে ছবিটা দেখে ফেলতে হবে।
যে বিষয়টা বলতে চাই নি, তা হলে ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র প্যাটারসন বাস ড্রাইভার হলেও সে মূলত একজন কবি। আর তার জীবনও বহুমাত্রিক হয়ে উঠেছে কেবল ঐ কবিতার জন্যেই। প্যাটারসনের স্ত্রী, যিনি কিনা স্বপ্ন দেখেন এক সময় সে একজন কান্ট্রি সং শিল্পী ও এক সময় বিত্তশালী হবেন। এমন একটা সাদামাটা গল্প, কি করে আপনার ভেতরে একটা শীতল বাতাস ছড়িয়ে দিতে পারে তার উত্তর ১ ঘন্টা ৩৮ মিনিটের ভিস্যুয়াল। আর কোনও গল্প না করে চলুন দেখে ফেলি কবি ও বাস ড্রাইভারের গল্প।

Paterson_2016_720p_WEB_DL_mkv_001007257

শেয়ার করুন

লেখা সম্পর্কে মন্তব্য

টি মন্তব্য

%d bloggers like this: