গুচ্ছ কবিতা ।। অস্তনির্জন দত্ত

১. কিছু পাতা জুড়ে ঘুম, পাতা জুড়ে জুড়ে  সান্ধ্যআহ্নিক এর পর  আমি বলেছি চোখ তোমার বয়স হচ্ছে…   হয়ত হালকাভাবে আঠা , লাল নীল কাগজ কুচি জোড়া দিতে দিতে কিছু পাতা  আর বৃক্ষসমীপে  আমি বলেছি ঘুম কিছু পাতা জুড়ে তৈরি হয়   যেটুকু টোল ফেললে হাসি তোমাকে স্নিগ্ধ করে , স্নানে নেয়  পুকুরের জলে কুল্কুচি …

কবিতালাপ ।। উপল বড়ুয়া

আপনি কবিতা লিখতে শুরু করলেন কিভাবে? সাহিত্য করার প্রবণতাটা আমার তৈরী হইছে আমার বাবারে দেখে। অনেকটা জ্যানেটিকেলি। আমার বাবারে দেখতাম, বেকার মানুষ সিগারেটের পর সিগারেট জ্বালিয়ে রাত জেগে জেগে লিখে যাচ্ছেন। মাঝে মধ্যে কই যেন কোথায় পালিয়ে যেতেন। তারপর কয়েকমাস পর বই-পুস্তক নিয়ে ফিরে আসতেন। তো এভাবে বাপের লেখালেখি আমার মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে পরে। প্রথম …

রোবো ।। মেসবা আলম অর্ঘ্য

রোবো ১. তাকাও। মুছে ফ্যালো। হারিও না। চোখের ভিতরে ওই মুখ তোমার অপেক্ষক। ওই ঠোঁট তোমার ব্যাকরণ। তুমি তোমার তথ্যের কেউ না। তুমি তোমার নিয়মের কেউ না।  ~ ~ নিরবধি চিহ্ন। অলাত চিহ্ন। কেউ জানে না। এক ও এক যোগ করো। আবার যোগ করো। আবার আবার… এই রাশি তোমার শরীর। তুমি তার রোবো’র কেউ না। …

নির্বাচিত ২৫ কবিতা ।। নির্ঝর নৈঃশব্দ্য

সহোদরা ও প্রেমিকার মৃত্যু   যে বাতাসে ভেসে তোমাদের দেশে আসি কিছু মদ আর বিষাদ জমিয়ে রাখি বাতাস ঝড় হবে না বলে আমাকে ভাসায় আমি উদ্ভ্রান্ত দিনের পেটে ঘুমিয়ে থাকি কাঁথার ভিতর জেগে থাকে রোদের পাথর তার উত্তরে ছিলো দীর্ঘ রাতের নিশ্বাস তোমাদের দরোজায় ডাকে শাদা রাজহাঁস এই ভেবে আমি জেগেছিলাম চারশোবছর   ঘুম ভেঙে …

তিন কবির কবিতা ।। নুসরাত নুসিন । মাহী ফ্লোরা । মিতা চার্বাক

নুসরাত নুসিন পশ্চাৎ পথের অভিমুখ নদীর মতো মানুষের আপাত গন্তব্য তবে মোহনা? পশ্চাৎ পথের অভিমুখ ? রঙের বিস্তৃত বাঁকগুলো এক হয়ে উঠলে কেমন নান্দনিক সমুদ্র হয়ে উঠি । তরঙ্গ ঘন হতে হতে একরঙা বরফময়— তারপর ধীরে ধীরে উচ্চতায় সোনালি প্রমিথিউস গান । বাঁকগুলোয় ফিরে যেতে যেতে না বিস্ময়ে দেখি, কবেকার বিরুদ্ধস্রোত আছড়ে পড়ছে অযুত নিযুত …

সিলেটি ভাষায় কবিতা ।। আবু তাহের তারেক

ফাগলি সুনামগঞ্জ বাস্ট্যান্ডর গেছে যে ফাগলিরে দেখছিলাম, তাই ফাগল আছিল নি? ক্লাশ ফৌরো থাখতে বৃত্তি দিবার লাগি সুনামগঞ্জ ঢুইক্কা অউ দেখি- ‘হাসন রাজার দেশো স্বাগতম’ লেখা। ঠিক এর ফরেওউ, ধলা হেগরা বেটি এগু দৌঁড়ি যায় দেখি গান গাই গাই। মোল্লার বেশ আমার। এখে তো বাইচ্ছা বয়স। মইষর উলনর লাখান মোটা মোটা বাট, খলার ফাসর লাখান …

নির্বাচিত ২৫ কবিতা ।। সব্যসাচী সান্যাল

প্রিয় পিয়ক্কড় কাব্যগ্রন্থ থেকে ১. প্রিয় সম্পাদক, “আমাকে বুঝতে গেলে জটিলতা অর্জন কর। সারল্য তোমাকে সারাতে পারত, সেই সব দিন চলে গেছে”—এ’ভাবে বলতে পারতাম, গানের লাইন হিসেবেও মন্দ নয়—তবে বিনয়ে বাধে। বরং এ’ভাবে বলি, আমার কবিতার একমাত্র কাজ আমার একাকীত্বকে সন্দেহ করা। আত্মপক্ষের বাঁট ঘুরিয়ে দিয়ে অন্ত্রে ঢুকিয়ে দেওয়া ফলা। রেটরিক বলতে প্লেটোর কথা মনে …

‘ডুবোপাহাড়’ বই থেকে কবিতা ।। খান রুহুল রুবেল

অরণ্যভ্রান্তির দিকে   অরণ্যভ্রান্তির ঠিক নিচে, তুমি খুলে ফেলো হে নাবিক, তোমার নিবিড় টুপি,তার্পিন, এরপর কাঠের সীমানা, কিছু পরে কুঠারের দিন এইদিকে শুরু হয়ে গেছে। ডেকে উঠছে পাথর, তার মোম, এ শীতে জরজর শ্বাপদ অক্ষম হিংসা হাতে হেঁটে গেল কিছুদূর, তাকে পেয়ো না ভয়, বরং তোমার আশ্রয়, ময়ূরের- স্বভাবের কাছে রয়ে গেছে, তাকে দিও কিছু …

নির্বাচিত ২৫ কবিতা ।। দেলোয়ার হোসেন মঞ্জু

ফিতা_____________________   মাদারিপুরের স্তনের দিকে ধাবমান সিদ্ধিরগঞ্জ…   বাতাসে ব্লেড উড়ছে বাতাসে ব্লেড উড়ছে…   কেওড়ার ডালে মৃত ময়ূরীর চুল দেখা যায়… … এ ছায়া কর্দমাক্ত ঠিক মানুষ নয়, মানুষের মতো অবয়ব। শূন্য পাকস্থলী ফুঁড়ে জন্ম নিচ্ছে অজগর দিদিরা যমুনামুখী অভ্যন্তর ফেলে দিতে জরায়ন পরিত্যাগ করি… আমি আর কেউটে সাপ অভিযাত্রী পরস্পর।   সু-প্রভাত নামে …

৪০টি কবিতা ।। মাসুদ খান

কুড়িগ্রাম কোনোদিন আমি যাইনি কুড়িগ্রাম।   রাত গভীর হলে আমাদের এই প্রচলিত ভূপৃষ্ঠ থেকে ঘুমন্ত কুড়িগ্রাম ধীরে ধীরে আলগা হয়ে যায়। অগ্রাহ্য করে সকল মাধ্যকর্ষণ। তারপর তার ছোট রাজ্যপাট নিয়ে উড়ে উড়ে চলে যায় দূর শূন্যলোকে।   আমরা তখন দেখি বসে বসে আকাশ কত-না নীল ছোট গ্রাম আরো ছোট হয়ে যায় আকাশের মুখে তিল।   …