তারাদের ঘরবাড়ি ।। ধারাবাহিক উপন্যাস – দ্বিতীয় পর্ব ।। অলোকপর্ণা

২ সিঁড়ির ধাপে বসে জনৈক মঞ্জুনাথের জন্য অপেক্ষা করছে ইন্দিরা। সামনেই একটা বহুতল উঠে গিয়েছে আকাশ পর্যন্ত। তার বিশ থেকে ত্রিশ তল জুড়ে রয়েছে এক বিরাট বিজ্ঞাপনী হোর্ডিং। সেই হোর্ডিঙে সদ্য দাঁড়াতে শিখে একটি শিশু আকাশের দিকে তাকিয়ে আছে। শিশুটির পায়ের তলায় দক্ষিণী ভাষায় কিছু একটা লেখা। ইন্দিরা আন্দাজ করে, লেখাটায় তাকে উড়তে শেখানো হচ্ছে। …

মৃত্যুর দুয়ারে রবীন্দ্রনাথ ।। আবদুল্লাহ আল-হারুন

ইউরোপে মৃত্যুপথযাত্রীদের শেষ সময়ে সঙ্গ দেওয়ার সংগঠন হজপিস। হজপিস একটা আন্দোলনও। লেখককে প্রথম বাঙালি হজপিসকর্মী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেওয়া যায়। শতাধিক মৃত্যুসঙ্গের অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে ‘মৃত্যু’ হয়ে উঠেছে যার প্রিয় বিষয়। অনুবাদকর্মের পাশাপাশি তিনি মৃত্যু বিষয়ক লেখালিখি করে থাকেন। ‘জীবন মরণের সীমানা ছাড়ায়ে’, ‘অঙ্গবিহীন আলিঙ্গন’ এবং ‘মৃত্যু: একটি দার্শনিক জিজ্ঞাসা’র পর চলতি বইমেলায় ‘ঐতিহ্য’ থেকে …

তারাদের ঘরবাড়ি ।। প্রথম পর্ব ।। অলোকপর্ণা

১. এরকম পুরোনো বাড়িতে আগে আসেনি ইন্দিরা। ভিতরে অন্ধকার পুষে চুপ করে বসে থাকা বাড়ি, দেওয়ালে আদর করে জমিয়ে রাখা শ্যাওলা। যেন কিছু দেখতে পাচ্ছে না এমনভাবে দেওয়ালে হাত রেখে রেখে এগোয় সে, একটু বাদে আলো আসে। ইন্দিরা বাড়িটার ছাদে এসে পৌঁছোয়। নীচু পাঁচিলের ছাদ, শিশুর মাথায় হাত রাখার মত পাঁচিলে হাত রেখে ঝুঁকে দেখে …

ভ্রমণ ।। মাহবুব ময়ূখ রিশাদ

একটা সময় ছিল যখন ভাবতাম গল্প লিখতেই বসলেই বুঝি লেখা হয়ে যায়, লিখেছিও অনেক। মোবাইলে, ক্লাসের ফাঁকে। যেদিন আখতারুজ্জামান ইলিয়াস এবং শহীদুল জহির পাঠ করে ফেললাম, সেদিন থেকে গল্প নিয়ে চিন্তা-ভাবনা অনেকাংশে বদলে গেল। নিজের বইয়ের ভুলগুলো বড় প্রকট হয়ে চোখের সামনে দৃশ্যমান হলো। সময়ে শিখছি, জানছি। এবারের পান্ডুলিপি সময় নিয়ে করা। পত্রিকায় কিছু গল্প …

সাখাওয়াত টিপুর মৃত্যু ও মার্কেজের চিঠি ।। নূর সিদ্দিকী

পাণ্ডুলিপি থেকে গল্প পাণ্ডুলিপি : মেয়েটির পায়ে নূপুর ছিলো প্রকাশক : চৈতন্য, অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৭ প্রচ্ছদ: রাজীব দত্ত সাখাওয়াত টিপুর মৃত্যু ও মার্কেজের চিঠি নূর সিদ্দিকী হ্যালো আব্দুস সালেক একটা সিএনজি বা অ্যাম্বুলেন্স যা পাও তা নিয়াই তাড়াতাড়ি আমার বাসায় আসো। আমারে হাসপাতালে নিয়া যাইতে হইবো। এরপর আর বিস্তারিত শোনার অপেক্ষা না করেই আমি ফোনটা …

সঙ্ঘমিত্রা হালদারের গদ্য ‘কেন মেঘ আসে অথবা একটি কবিতা’

থাকে আমাদের এমন অনেক অনুভূতি, ভাবনা-চিন্তা, যা অহং-সর্বস্ব নয়। মানে সবটা সামাজিক-রাজনৈতিক—বা ব্যক্তি-আমির সঙ্গে কারোর বা কোনও কিছুর সংঘর্ষজাত নয়। থাকে এমন কিছু চেতনা ও অনুভব যা এই বিশাল ব্যাপ্ত চরাচরের। দিক্‌-দিশাহীন মহাশূন্যের। আবার এত সহজে দাগিয়ে দেওয়া যায় না, এমনকি সেই চেতনা বা অনুভব যে কেন- কী- কিভাবে, কিছুতেই ঠিকমতো ঠাহর করা যায় না—থাকে …

বিনয় মজুমদার— কী দারুণ প্রসারণশীল চিন্তা এবং জীবিত ডালপালা ।। শিমুল সালাহ্উদ্দিন

[বাংলা কবিতায় অসামান্য প্রভাব বিস্তারকারী কবি বিনয় মজুমদারের কবিতা নিয়ে শিমুল সালাহ্উদ্দিনের এই লেখাটি ছয় বছর আগের; যা মাদুলির বিনয় মজুমদার সংখ্যায় প্রকাশ হয়। শিমুল সালাহ্উদ্দিনের অনুমতি পেয়ে কবির জন্মদিনে লেখাটি শিরিষের ডালপালায় পুনঃপ্রকাশ হলো।] কৈফিয়ত আলোচনায় প্রবেশিবার পূর্বেই কিছু কৈফিয়ত জরুরি মনে করিলাম। প্রিয় কবি বিনয় মজুমদারকে আমার মতোন আবিষ্কারের কথকতা এই ছত্রসমূহ। কোন …

মুক্তগদ্য : এক দরিয়া শূন্যতা ও অন্ধ সে অরণ্যে যখন ।। মেঘ অদিতি

এক দরিয়া শূন্যতা সবুজ পাতার মাঝে আশ্চর্য সব আলো। হাওয়াদেরও খুব ছুটোছুটি। গাছদের সাজ তখন অবধি কেউ খুলে নেয়নি। ফুলের রঙ দিয়ে আঁকা হচ্ছে সাম্পান। আকাশের কোথাও কোথাও মেঘ জমছে, টুকরো, ছাই ছাই রঙা তবে সেসব খুব অল্প সময়ের জন্য। মেঘ সরে গেলেই আবার হাওয়ার টানে আমরা এক হয়ে, গোল বৃত্ত হয়ে, বুঁদ হয়ে গান …

গল্প : বাইনোকুলার ।। মাজহার সরকার

স্কুলে ছাত্র-টয়লেটের দেয়ালজুড়ে আকাঁ একটা পানপাতার ভেতর শিউলি আপার নামের শেষে যোগচিহ্ন দিয়ে জয়নাল স্যারের নাম লেখা। টয়লেটে ঢুকে প্যান্ট খুলে বসতেই দরজার মধ্যে যা লেখা দেখা যাবে পৃথিবীর কোথাও এমন উষ্ণ স্বাগতম কেউ কাউকে আগে জানায়নি। ত্যাগ, নিমগ্ন নগ্ন ধ্যান আর শান্তির এমন বাণী কেউ প্রচার করেনি। গত শীতে সেন্ট মার্টিন শিক্ষা সফরের সময় …

বাঁক বদলের বাক্ ।। অনুপম মুখোপাধ্যায়

বাংলা ভাষার একদম আদি সাহিত্য ওয়েবজিনের নাম নিলে ‘বাক্’ চলে আসে প্রথম দিকেই।ওয়েবজিনটি ১০০তম সংখ্যা প্রকাশ করলো ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬; যা নিঃসন্দেহে একটি মাইলফলক। বাক্’র এই গর্বিত সাফল্যে বাংলাদেশের প্রথমদিকের ওয়েবজিন শিরিষের ডালপালার অভিনন্দন। আমরাও বিশ্বাস করি, ভবিষ্যতে বাংলা সাহিত্যের চর্চা, প্রকাশ ও বিকাশে ওয়েবজিনগুলো মূখ্য ভূমিকা পালন করবে। বছর তিনেক আগে এ বিষয়ে শিমন রায়হান …