আলাপচারিতা ।। হাসান রোবায়েত ও ওরা দশজন (প্রথম পর্ব)

দেশে প্রাতিষ্ঠানিক সাহিত্যচর্চার পরিবেশ নেই। প্রতিষ্ঠান আর স্বঘোষিত সাহিত্য-মোড়লদের থেকে মুক্তির জন্য চাই আলাদা প্ল্যাটফর্ম আর নিজের লেখাটি লেখার এবং নিজের কথাটি বলার সাহস। এই প্রজন্মের সেই সাহস আছে। তারা প্রতিষ্ঠিত ভ্রান্তিকে তীব্র আঘাতে দুমড়ে-মুচড়ে দিতে চায়। সেই বিশ্বাস থেকেই আমরা আড্ডা দেয়া শুরু করেছি। সমালোচনা করছি নিজেদেরই। শুরু করেছিলাম রাজীব দত্তকে দিয়ে।এবার আড্ডা হয়ে …

হারুকি মুরাকামির সাক্ষাৎকার (শেষ পর্ব) ।। অনুবাদ: পৌলমী সরকার

“আজকাল লেখার কাজে বর্ণনার একটা বড় ভূমিকা থাকে। আমি তত্ত্বকথায় বিশেষ বিশ্বাসী নই, শব্দের ব্যবহার নিয়েও নই। আমার কাছে যেটা সব থেকে গুরুত্ব পায় তা হলো বর্ণনাটি যথাযথ কীনা।” প্রশ্ন: আপনি আগে একবার ‘দ্য উইন্ড-আপ বার্ড ক্রোনিকল’ এর কথা প্রসঙ্গে বলেছিলেন, আপনি আপনার বাবাকে নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহী। ওনার এবং ওনার পুরো প্রজন্মের সাথেই যা যা …

একজন রাজীব দত্ত’র মুখোমুখি সাত কবি

কেউ কেউ বলে, এখন সাহিত্যের আড্ডা একদমই হয় না। আবার অনেকে বলে, দেশের আনাচে-কানাচে প্রচুর আড্ডা হয়। ঢাকা নগরীতেই শ’খানেক সাহিত্য আড্ডা হয়। নিয়মিত। তবে সেসব আড্ডায় সাহিত্য বিষয়ে আলাপের চেয়ে পরচর্চা বেশি হয়। আমাদের – বন্ধুদের মধ্যে সাহিত্য নিয়ে আলাপ হয়। পরচর্চাও যে হয় না, তা না। মাঝেমাঝেই আমরা এখানে-সেখানে মিলিত হই। একটা সময় …

কবিতালাপ ।। মাজহার সরকার

আপনি কবিতা লিখতে শুরু করলেন কিভাবে? মাজহার সরকার: আমার জীবনের প্রথম কবিতাটা ইংরেজিতে লেখা। স্কুল দেয়ালিকা ‘মৃত্তিকা’য়। আমি তার সম্পাদক ছিলাম। পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ি তখন। সম্পাদকীয় লেখার পর আমাদের ক্লাস টিচার বললেন, তোমারও তো একটা লেখা থাকা দরকার! তারপর সেটা লিখলাম। আমার বড় বোন ইংরেজি সাহিত্যের ছাত্রী ছিলেন। বাসায় ইংরেজী সাহিত্যের প্রচুর কবিতার বই ও …

হারুকি মুরাকামির সাক্ষাৎকার (তৃতীয় পর্ব) ।। অনুবাদ: পৌলমী সরকার

প্রশ্ন: আপনার লেখায় যেন ঠিক দুই ধরণের নারী চরিত্র থাকে; যাদের সাথে কেন্দ্রীয় চরিত্রটির প্রাথমিকভাবে বেশ দৃঢ় সম্পর্ক থাকে – প্রায়ই সেই নারী তারপর হারিয়ে যান এবং তার স্মৃতি তাকে কেবল তাড়া করে বেড়ায় – আরেক ধরনের নারী চরিত্র যারা তারপরে কেন্দ্রীয় চরিত্রটির জীবনে আসে এবং হয় তার গন্তব্যের দিশা দেখায় অথবা স্মৃতি থেকে সেই …

হারুকি মুরাকামির সাক্ষাৎকার (দ্বিতীয় পর্ব) ।। অনুবাদ: পৌলমী সরকার

প্রশ্ন: আপনার পড়া ইংরেজি সাহিত্যের প্রথম বই কোনটি? হা.মু: ‘The Name is Archer’, Ross Mcdonald এর লেখা। বইটি থেকে অনেক কিছু শিখেওছিলাম। শুরু করার পর শেষ না করে উঠতে পারিনি। সে সময় আমি তলস্তয় আর দস্তয়ভস্কির লেখা পড়তেও বেশ ভালবাসতাম। সেই বইগুলিও ভীষণ চিত্তাকর্ষক। যদিও গল্পগুলি বেশ বড়, তবুও আমি পড়া শেষ না করে থামাতে …

হারুকি মুরাকামির সাক্ষাৎকার (প্রথম পর্ব) ।। অনুবাদ: পৌলমী সরকার

হারুকি মুরাকামির জন্ম ‘Kyto’-তে, যেটা জাপানের পূর্ব রাজধানী। তাদের মধ্যবিত্ত পরিবারে জাতীয় সংস্কৃতির প্রতি ব্যাপক উৎসাহের কমতি ছিলো না। মুরাকামির বাবা ছিলেন জাপানি সাহিত্যের শিক্ষক, পিতামহ বৌদ্ধ-সন্ন্যাসী। দুই বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে তিনি ‘Kobe’ তে চলে যান। এটি একটি ব্যস্ত পোতশহর- যেখানে সারাবছর বিদেশীদের আনাগোনা লেগেই থাকে (বিশেষত আমেরিকান নাবিকদের)। এই শহর তার অনুভূতিগুলোকে অনেকটাই …

আমি পাণ্ডিত্যপূর্ণ কিছুতে অনাগ্রহ নিয়ে বড় হয়েছি ।। উডি অ্যালেনের সাক্ষাৎকার ।। অনুবাদ: নীলাঞ্জনা অদিতি

বিভিন্ন ক্ষেত্রে উডি অ্যালেনের অগ্রযাত্রা বিস্ময়কর— মোশন পিকচার, মঞ্চ, সাহিত্য। তিনি নিজেকে শিল্পের এসব মাধ্যমের বাধ্যগত কর্মী মনে করেন। তিনি একবার বলেছিলেন, “আমি সবচেয়ে বেশি করতে পছন্দ করি সেটা, যেটা এখন করছি না”। কমেডিতে অ্যালেন কাজ শুরু করেন বয়ঃসন্ধিতে, তখন তিনি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় কৌতুক জমা দিতেন। ১৯৬৫ সালে What’s New, Pussycat? দিয়ে অভিনেতা ও চিত্রনাট্যকার …

দিঅনে আরবুস : অনাম্নীর ছায়া শিকারী ।। মাহমুদ আলম সৈকত

[২০১২ সালে প্রকাশিত জার্নাল ‘হিস্টোরি অব ফটোগ্রাফি’ -তে তাঁর সম্পর্কে বলা হয়েছে “The obsessive, self-indulgent, no-holds-barred quality of Diane Arbus’s life, and the helpless, desperate nature of her death, have led to the photographer’s being portrayed as a spectacularly flawed shooting star of photographic history’’.’তিনি আলোকচিত্রী দিঅনে আরবুস। জন্ম ১৯২৩, যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইঅর্ক সিটির এক …