home আলাপচারিতা স্লাভয় জিজেক — তাঁর সঙ্গে কথাবার্তা ।। অনুবাদ : শাফিনূর শাফিন

স্লাভয় জিজেক — তাঁর সঙ্গে কথাবার্তা ।। অনুবাদ : শাফিনূর শাফিন

স্লাভয় জিজেক (৬৮) স্লোভেনিয়ার এলজুব্লজানায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ইউরোপীয় গ্র্যাজুয়েট স্কুলের প্রফেসর, লন্ডনের বার্কবেক ইনস্টিটিউট ফর হিউম্যানিটিজ ইন্টারন্যাশনাল ডিরেক্টর এবং এলজুব্লজানা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের একজন সিনিয়র গবেষক। তিনি হিচকক থেকে শুরু করে লেনিন এবং ৯/১১ এর মতো বিভিন্ন বিচিত্র বিষয়ের উপর ৩০টার বেশি বই লিখেছেন এবং “পার্ভার্ট’স গাইড টু সিনেমা” নামে টিভি সিরিজও করেছেন। ২০০৮ সালে দি গার্ডিয়ানে প্রকাশিত তাঁর একটি সাক্ষাৎকারের অনুবাদ এখানে প্রকাশ করা হলো। অনুবাদ করেছেন শাফিনূর শাফিন।


কখন সবচেয়ে বেশি সুখী ছিলেন?

কয়েকবার মাত্র।  যখনই মনে করার চেষ্টা করেছি বা ফিরে দেখেছি যে, আমার সুখের কোনো মুহূর্ত কখনো ছিল কিনা— তেমন কোনো মুহূর্তের কথা আমার মনে পড়ে না।

সবচেয়ে বেশি ভয় পান কোন বিষয়টি?  

মরার পরে পুনরায় জেগে ওঠাটা — এই কারণে যতো দ্রুত সম্ভব আমি পুড়ে ছাই হয়ে যেতে চাই।

একদম প্রথমদিককার কোনো স্মৃতি?

আমার মাকে উদোম দেখে ফেলাটা । পুরা ব্যাপারটাই বিরক্তিকর ছিল!

জীবিত কাকে আপনি সবচেয়ে বেশি মূল্যায়ন করেন, এবং কেন করেন?

জ্য বার্ট্রান্ড আরিস্তিদ্যে, দু’বার পদত্যাগকারী হাইতির প্রেসিডেন্ট। তাকে এমন এক মডেল বা অনুকরণীয় বলা যায় যিনি দেখিয়ে দিয়েছেন খুব প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেও মানুষের জন্য কী-না করা যায়।  

নিজের কোন বৈশিষ্ট্যটা নিয়ে খুব আফসোস আছে আপনার মধ্যে?

অন্যদের ভোগান্তির কারণ হবার প্রতি নিঃস্পৃহতা।

অন্যদের কোন ব্যাপারটায় খুব বিরক্ত হন?

আমার দরকার নাই বা আমি চাই না তবু তাঁরা এক পায়ে খাঁড়া— আমাকে সাহায্য করতে।

আপনার জন্য খুব বিব্রতকর মুহূর্ত?  

কোনও একজন নারীর সামনে সঙ্গমের আগে কাপড়চোপড় খুলে দাঁড়িয়ে পড়াটা ।

সম্পত্তি বাদ দিলে, আর দামী কী কিনেছেন?

হেগেলের সব লেখার কালেকশনের সাম্প্রতিক জার্মান এডিশন।

সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ কী?

আগের উত্তরটা দেখুন।

কোন ব্যাপারটা খুব দুঃখজনক লাগে?

বেকুব লোকদের সুখে থাকতে দেখলে।

নিজের চেহারাসুরতের কোন ব্যপারটা সবচেয়ে অপছন্দের?

আমাকে বাস্তবে যেমন দেখতে লাগে, এই ব্যাপারটা হতাশ করে।

আপনার সবচেয়ে ফালতু স্বভাব কোনটা?

কথা বলার সময় হাস্যকরভাবে অতিরিক্ত হাত নাড়ানোটা।

নিজের পছন্দমতো কোনো পোশাক বা কিছু পরতে বললে কী পরতেন?

আমার মুখের উপর একটা মুখোশ পরে নিতাম, যাতে করে মানুষজন ভাবতে পারে যে আমি ঠিক আমি নই কিন্তু এমন কেউ যে আমি হবার ভান করছে।

আপনার জন্য লজ্জাকর আনন্দ বা উপভোগের বিষয় কোনটা?

সাউন্ড অভ মিউজিকের মতো দুঃসহ সিনেমা দেখাটা লজ্জার

বাবা মায়ের কাছে কী কোন ঋণ আছে?

মনে হয় না কিছু আছে। তাঁদের মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান হয়ে একটা মিনিটও আমি ব্যয় করি নাই। 

কাকে আপনি দুঃখিত বলতে চান এবং কেন?

আমার ছেলেদেরকে, যথেষ্ট ভালো বাবা হতে না পারার জন্য।

ভালোবাসা ব্যাপারটা আসলে কেমন?

এটা চরম দুর্ভাগ্যের মতো, একটা ভয়ংকর পোকার মতো, এমন একটা স্থায়ী জরুরী অবস্থা যা সব ধরনের ছোটখাটো আনন্দ উপভোগ করাকে নষ্ট করে দেয়। 

আপনার জীবনের প্রেম কে বা কী?

দর্শন। সংগোপনে ভাবি, বাস্তবতার অস্তিস্ত্ব আছে বলেই আমরা এটা ধারণা করতে পারি।

প্রিয় গন্ধ বা ঘ্রাণ কিসের?

প্রকৃতির ধ্বংসের, যেমন পচে যাওয়া কাঠ। ।

‘ভালোবাসি’ বলেছেন কিন্তু আসলে ভালোবাসেন নি এমন হয়েছে?

সবসময়! আমি যখন কাউকে সত্যিই ভালোবাসি, উদ্ধত আর তিক্ততার স্বাদ দিয়েই আমি তা প্রকাশ করতে পারি কেবল।

জীবিত কাকে সবচেয়ে বেশি ঘৃণা করেন এবং কেন?

মেডিকেল ডাক্তারদের, যারা নির্যাতনকারীদের সহায়তা করে।

সবচেয়ে বাজে কোন কাজটা করেছেন?

শিক্ষকতা। আমি ছাত্র-ছাত্রীদের ঘৃণা করি, তাঁরা বেশিরভাগই (আর সব লোকের মতোই) বোকা এবং বিরক্তিকর।  

আপনার জন্য খুব হতাশাজনক কী ছিল?

কমিউনিজমের চরম ব্যর্থতা। অ্যালেন বাঁদিও যাকে বিংশ শতাব্দীর “অস্পষ্ট দুর্যোগ” আখ্যা দিয়েছেন।

অতীতের কোনো কিছুকে সম্পাদনা করার সুযোগ পেলে  কোনটা বদলাতেন?

আমার জন্ম। সফোক্লেসের সাথে আমি একমতঃ না জন্মানোটা হচ্ছে সবচেয়ে বড় সৌভাগ্যের ব্যাপার— কিন্তু মজাটা হলো খুব কম লোকই এক্ষেত্রে সফল হয়।

যদি কোনো একটা সময়ে ফিরে যেতে পারতেন, কোথায় যেতেন?

উনবিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকের জার্মানিতে, হেগেল পরিচালিত কোনো একটা ইউনিভার্সিটি কোর্স পড়তে যেতাম।

অবসরে কীভাবে কাটান?

ওয়াগনারকে বারবার শুনে।

কতবার সেক্স করেন সাধারণত?

এটা আসলে নির্ভর করে সেক্স বলতে কে কী বোঝে। ব্যাপারটা যদি, যে সঙ্গীর সাথে থকছেন  তাঁর সাথে করা প্রাত্যহিক মৈথুন হয়, তাহলে আমি তা একেবারেই না করার চেষ্টা করি।   

মৃত্যুর খুব কাছাকাছি যাবার সময়টা কেমন ছিল?

আমার যেবার মাইল্ড হার্ট অ্যাটাক হলো। আমি আমার শরীরটাকেই ঘৃণা করা শুরু করেছিলাম, অসুখটা আমার প্রতি নিজ কর্তব্য অন্ধের মতো পালন করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল।

এমন একটা ব্যাপার বলুন যা আপনার জীবনের মানকে আরো উন্নত করতে পারতো?

সন্ন্যাসযাপন এড়াতে পারলে।

আপনার বিশাল অর্জন মনে করেন কোনটাকে?

আমার মনে হয়, সেই অধ্যায়গুলো— যেখানে আমি হেগেলের বক্তব্যের ভালো ব্যাখ্যা দাঁড় করাতে পেরেছি।

জীবন থেকে আপনি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে শিক্ষা পেয়েছেন? 

এই যে জীবন, সেটা একটা বোকার মতো, অনর্থক একটা ব্যাপার যার কাছ হতে আসলে তোমার  কিছুই শেখার নেই।

আমাদের একটা একটা গোপন বার্তা দিয়ে রাখুন।  

কমিউনিজমের জয় হবে।

লেখা সম্পর্কে মন্তব্য

টি মন্তব্য